রমজান মাসের সুরা তারাবি এবং খতম তারাবি নিয়ম

রমজান মাসের সুরা তারাবি এবং খতম তারাবি নিয়ম মুসলিম সমাজে বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি আদর্শ বিধান। এই দুটি ইবাদতের সময়ে মুসলিম ব্রাদারহুডের পার্টিসিপেশন খুবই গভীরভাবে রয়েছে। রমজান মাসের সুরা তারাবি এবং খতম তারাবি সম্পর্কে প্রধান নিয়ম বিস্তারিত নিম্নে দেওয়া হল:

**রমজান মাসের সুরা তারাবি:**
1. সুরা তারাবি হল কোরআনের বিশেষ পরিমাণ পড়ার একটি আদর্শ বিধান, যা মুসলিম পরিবারের সদস্যরা রমজান মাসের প্রতিটি রাতে সূরা বা পারা কোরআনের পরিমাণ পড়ে তাকিয়ে যায়।
2. সুরা তারাবি রমজানের শেষ ১০ দিনের মধ্যে পড়া শুরু করা হয় এবং মাসের সব তারিখ শেষ অতিথির আগমনে পর্যন্ত চলতে থাকে।
3. সুরা তারাবির পরিমাণ সাধারণত ১ টি কোরআন পরা হলেই সন্তুষ্টি প্রাপ্ত হয়।

**রমজান মাসের খতম তারাবি:**
1. খতম তারাবি হল রমজান মাসের শেষের ১০ দিনে সূরা তারাবি পড়ার একটি বিশেষ আদর্শ বিধান।
2. মুসলিম সমাজের বড় অংশ পার্টিসিপেট করে সূরা তারাবি এবং খতম তারাবি ইবাদতে।
3. সূরা তারাবি পড়ার পরে একটি বিশেষ দোয়া পড়া হয়, যা খতম তারাবি বলা হয়।

**নোট:** রমজান মাসের সুরা তারাবি এবং খতম তারাবির নির্দিষ্ট নিয়ম বিভিন্ন মুসলিম সমাজে ভিন্নভাবে প্রচলিত হতে পারে, এবং এগুলি কানুন পরিমাণে সম্পাদন করা হয়। তবে, উপরে উল্লিখিত নিয়মগুলি প্রধানত সাম্প্রদায়িক সাথে সাবলীল।

0 মন্তব্যসমূহ