সবুজ সনদ আরো তিন পোশাক কারখানার

সবুজ সনদ আরো তিন পোশাক কারখানার

বাংলাদেশের আরও তিনটি তৈরি পোশাক কারখানাকে সবুজ কারখানা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনাইটেড স্টেটস গ্রিন বিল্ডিং কাউন্সিল (ইউএসজিবিসি)। নতুন তিন কারখানা নিয়ে দেশের পোশাক খাতে মোট পরিবেশবান্ধব প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭১-এ।

সবুজ কারখানার সনদ পাওয়া কারখানা তিনটি হলো—ফতুল্লা অ্যাপারেলস, শরাফ অ্যাপারেলস ওয়াশিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ এবং ডেবোনেয়ার অ্যান্ড অরবিটেক্স নিটওয়্যার লিমিটেড। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) তিনটি কারখানাই প্লাটিনাম রেটিং পেয়েছে।

বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) পরিচালক মহিউদ্দিন রুবেল ভোরের কাগজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।সবুজ পোশাক কারখানা ভবনের বাংলাদেশ বিশ্বের শীর্ষস্থানীয়। বাংলাদেশের ৫৩টি পোশাক কারখানা প্লাটিনাম রেটিং, ১০৪টি গোল্ড রেটিং ও ১০টি সিলভার রেটিং পেয়েছে। আর চারটি কারখানা কোনো রেটিং পায়নি, কিন্তু সনদ পেয়েছে।

আরও প্রায় ডজনখানেক কারখানা পরিবেশসম্মত সবুজ কারখানার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লিডারশিপ ইন এনার্জি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ডিজাইন (লিড) সনদ পাওয়ার প্রক্রিয়ায় রয়েছে।বর্তমানে রেমি হোল্ডিংস ও ফতুল্লা অ্যাপারেলস ১১০-এর মধ্যে ৯৭ পয়েন্ট নিয়ে যৌথভাবে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।

ফতুল্লা অ্যাপারেলসের সিইও ফজলি শামীম এহসান বলেন, সারা বিশ্বে এটাই লিড সনদে কোনো নিটওয়্যার কারখানার পাওয়া সর্বোচ্চ স্কোর।বাংলাদেশ ২০০১ সাল থেকে লিড সনদ পাচ্ছে।

রূপান্তর পারফর্ম্যান্স, জ্বালানি, পানি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ কয়েকটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে কারখানাগুলোকে সবুজ কারখানা স্বীকৃতি দেয় ইউএসজিবিসি। সেরা পারফর্মার প্লাটিনাম রেটিং পায়, প্লাটিনামের পরের দুটি অবস্থানের কারখানাকে যথাক্রমে গোল্ড ও সিলভার ক্যাটাগরি রেটিং দেওয়া হয়।

Advertisement