২ উইকেটে হেরে পগারপার বাংলাদেশের

এবার আর ফিরে তাকানোর সুযোগ নেই, হয় জেতো, অথবা বিদায় নাও! এমন সমীকরণ সামনে নিয়ে দুবাইয়ে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে গ্রুপ ‘বি’-এর এ ম্যাচে জয়ী দল সুপার ফোরে সঙ্গী হবে আফগানিস্তানের, হেরে যাওয়া দলকে নিতে হবে বিদায়।   কথার লড়াই অবশ্য শুরু হয়েছে ম্যাচের আগে থেকেই। আফগানিস্তানের ম্যাচের পরই শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দাসুন শানাকা বলেছিলেন, আফগানিস্তানের চেয়ে সহজ প্রতিপক্ষ হবে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান আর মোস্তাফিজ ছাড়া বাংলাদেশে বলার মতো আর কোনো বোলার নেই, এমনও বলেছিলেন শানাকা। সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজ অবশ্য অধিনায়কের কথা শুনে বিস্মিতই হয়েছিলেন।   গতকাল অবশ্য শানাকার কথার কড়া জবাবই দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। সরাসরিই বলেছেন, শ্রীলঙ্কার কোনো বোলারই দেখেন না তিনি। তাঁদের তবুও দুজন বোলার আছেন, শ্রীলঙ্কার সেটিও নেই!   এরপর কথার লড়াইটা গেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে তাঁর উত্তরসূরিদের মাঠেই জবাব দেওয়ার জন্য বলেছেন। আর এশিয়া কাপে চোটের কারণে খেলতে না পারা নুরুল হাসানের দাবি, এ ম্যাচে ফেবারিট বাংলাদেশই।   দুই দলের দ্বৈরথের ইতিহাসটাও পুরোনো, ২০১৮ সালে নিদাহাস ট্রফিতে যেটি পেয়েছিল ভিন্ন এক মাত্রা। আজ কার্যত নকআউট ম্যাচে সে দ্বৈরথের কোন রোমাঞ্চ দেখা যাবে? সেটির জন্য প্রস্তুত আপনি?

এবার আর ফিরে তাকানোর সুযোগ নেই, হয় জেতো, অথবা বিদায় নাও! এমন সমীকরণ সামনে নিয়ে দুবাইয়ে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে গ্রুপ ‘বি’-এর এ ম্যাচে জয়ী দল সুপার ফোরে সঙ্গী হবে আফগানিস্তানের, হেরে যাওয়া দলকে নিতে হবে বিদায়। 

কথার লড়াই অবশ্য শুরু হয়েছে ম্যাচের আগে থেকেই। আফগানিস্তানের ম্যাচের পরই শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দাসুন শানাকা বলেছিলেন, আফগানিস্তানের চেয়ে সহজ প্রতিপক্ষ হবে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান আর মোস্তাফিজ ছাড়া বাংলাদেশে বলার মতো আর কোনো বোলার নেই, এমনও বলেছিলেন শানাকা। সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজ অবশ্য অধিনায়কের কথা শুনে বিস্মিতই হয়েছিলেন। 

গতকাল অবশ্য শানাকার কথার কড়া জবাবই দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। সরাসরিই বলেছেন, শ্রীলঙ্কার কোনো বোলারই দেখেন না তিনি। তাঁদের তবুও দুজন বোলার আছেন, শ্রীলঙ্কার সেটিও নেই! 

এরপর কথার লড়াইটা গেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে তাঁর উত্তরসূরিদের মাঠেই জবাব দেওয়ার জন্য বলেছেন। আর এশিয়া কাপে চোটের কারণে খেলতে না পারা নুরুল হাসানের দাবি, এ ম্যাচে ফেবারিট বাংলাদেশই। 

দুই দলের দ্বৈরথের ইতিহাসটাও পুরোনো, ২০১৮ সালে নিদাহাস ট্রফিতে যেটি পেয়েছিল ভিন্ন এক মাত্রা। আজ কার্যত নকআউট ম্যাচে সে দ্বৈরথের কোন রোমাঞ্চ দেখা যাবে? সেটির জন্য প্রস্তুত আপনি? 

Advertisement