রোগী সেজে রাবিতে প্রক্সি দিতে এসে ধরা চিকিৎসক

 

রোগী সেজে রাবিতে প্রক্সি দিতে এসে ধরা চিকিৎসক


নাকে ও মাথায় ব্যান্ডেজ বেঁধে রোগী সেজে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে আসেন এক চিকিৎসক। 

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার চতুর্থ শিফটে পরীক্ষা দিতে এলে প্রশাসনের হাতে ধরা পড়েন তিনি। 

তার নাম সমের রায়। নিজেকে খুলনার একটি মেডিকেল কলেজের প্রভাষক বলে দাবি করেছেন এই চিকিৎসক। রাহাত আমিন নামের এক শিক্ষার্থীর হয়ে প্রক্সি দিতে আসেনে তিনি।

সমের রায়কে এক বছর এবং মূল পরীক্ষার্থী রাহাত আমিনকে একমাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত ।বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, কেউ যেন না চিনতে পেরে তাকে রাহাতই ভেবে নেন, সেজন্য মাথায়, নাকে ও হাতে ব্যান্ডেজ পরে পরীক্ষা দিতে আসেন সমের রায়।

একইদিনে (মঙ্গলবার) ডা. সমের রায়ের আগে আরও ৩ জন প্রক্সি দিতে এসে আটক হয়েছেন। তাদেরকেও একবছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের শিক্ষার্থী এখলাসুর রহমান ও লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী জান্নাতুল মেহজাবিন এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী বায়োজিদ খান।

পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়োজিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহমেদ তাদের এ সাজা দেন।

Advertisement