গ্রাহক সংকটে নেটফ্লিক্স

গ্রাহক সংকটে নেটফ্লিক্স

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ও প্রযোজনা সংস্থা নেটফ্লিক্সে গত এক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো গ্রাহক (সাবস্ক্রাইবার) কমেছে। এ কারণে সংস্থাটি তাদের ১৫০ কর্মীকে ছাঁটাই করার ঘোষণা দিয়েছে।

বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল মঙ্গলবার নেটফ্লিক্স এক বিবৃতিতে গ্রাহকসংখ্যা কমায় ১৫০ কর্মী ছাঁটাইয়ের এ ঘোষণা দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার অফিস থেকে এ কর্মী ছাঁটাই করা হয়। এ সংখ্যা উত্তর আমেরিকায় কাজ করা কর্মীদের মাত্র ২ শতাংশ।

নেটফ্লিক্স বিবৃতিতে বলেছে, ‘কোম্পানির রাজস্ব কমে যাওয়ার কারণে কর্মী ছাঁটাই করা হচ্ছে। আমরা কর্মীদের ছাঁটাই করতে চাই না। তারপরও এবারের এ পরিবর্তন প্রাথমিকভাবে কর্মীর ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের চেয়েও ব্যবসায়িক চাহিদার কারণে করা হচ্ছে।’

কোন বিভাগ থেকে কর্মী ছাঁটাই করা হচ্ছে, তা প্রকাশ করেনি নেটফ্লিক্স। তবে লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রিক্রুটিং, কমিউনিকেশন ও কনটেন্ট বিভাগ থেকে এই কর্মী ছাঁটাই করা হচ্ছে।

চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে দুই লাখ গ্রাহক হারালে বড় ধরনের ধাক্কা খায় নেটফ্লিক্স। শুধু তা-ই নয়, আসছে জুনের মধ্যে আরও ২০ লাখ গ্রাহক কমে যাবে বলে তথ্য পায় এই স্ট্রিমিং পরিষেবাটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী নেটফ্লিক্সের ২২ কোটি গ্রাহক রয়েছে। এতসংখ্যক গ্রাহক নিয়ে স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মগুলোর মধ্যে শীর্ষে অবস্থান ছিল এ সংস্থার। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ডিজনি প্লাস, এইচবিও, আমাজন প্রাইম ভিডিওসহ আরও কয়েকটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম বাজারে আসায় চরম প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হতে হয়েছে নেটফ্লিক্সকে। আর গত তিন মাসে সংস্থাটির গ্রাহকসংখ্যাও নিম্নমুখী দেখা যাচ্ছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রাশিয়া। এর প্রতিক্রিয়ায় একের পর এক দেশ মস্কোর ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে থাকে। অনেক কোম্পানি দেশটিতে তাদের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে। ইউক্রেনে রুশ হামলার প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়ায় কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় নেটফ্লিক্সও।

একই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ গুরুত্বপূর্ণ বাজারগুলোতে দাম বাড়িয়ে দেয় কোম্পানিটি। নেটফ্লিক্স বলছে, রাশিয়ায় কার্যক্রম বন্ধের কারণে সাত লাখ গ্রাহক হারাতে হয়েছে তাদের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কর্মী ছাঁটাইয়ের পাশাপাশি সংস্থাটি নিজস্ব কনটেন্টও কাটছাঁট করছে। চলতি মাসের শুরুর দিকে ব্যয় কমানোর জন্য মেগান মার্কেল নির্মিত অ্যানিমেটেড সিরিজ ‘পার্ল’-এর পরবর্তী সিরিজ উন্নয়ন বাতিল করে দিয়েছে।

গত ১৯ এপ্রিল শেয়ারহোল্ডারদের কাছে লেখা এক চিঠিতে নেটফ্লিক্স আশঙ্কা জানিয়েছিল, আগামী মে থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত পরবর্তী তিন মাসে তাদের গ্রাহকসংখ্যা আরও ২০ লাখ কমতে পারে। এমন অবস্থায় পাসওয়ার্ড বিনিময়ের মাধ্যমে একই অ্যাকাউন্ট ভাগাভাগি করে ব্যবহারের ওপর কড়াকড়ি আরোপের ইঙ্গিত দেয় কর্তৃপক্ষ। এখন নতুন সদস্যদের সাইন আপকে গুরুত্ব দিয়ে নজরদারি চালাবে তারা।

নেটফ্লিক্সের হিসাব অনুযায়ী, ১০ কোটির বেশি ব্যবহারকারী পাসওয়ার্ড বিনিময় করে নিয়ম ভঙ্গ করছে। এ ক্ষতি পুষিয়ে আনতে বিজ্ঞাপন দেখানোর চিন্তাভাবনাও করছে তারা। নেটফ্লিক্সের সহপ্রতিষ্ঠাতা রিড হাস্টিংস বলেছিলেন, ‘আমাদের যখন দ্রুত প্রসার হচ্ছিল, তখন অ্যাকাউন্ট ভাগাভাগি করে ব্যবহার বন্ধে আমরা খুব একটা গুরুত্ব দিয়ে কাজ করিনি। এখন আমরা অত্যন্ত কঠোরভাবে কাজটি করব।

0 মন্তব্যসমূহ