কোন দিকে যাচ্ছে এই প্রজন্ম কাদের অনুসারী হচ্ছে ?

কোন দিকে যাচ্ছে এই প্রজন্ম কাদের অনুসারী হচ্ছে ?


একটা প্রজন্ম ছিল যারা মাঠে খেলা করে আনন্দো নিতো কিন্তু দিন দিন মানুষের জনজীবন যেমন পরিবর্তন আসতেছে তেমনি পৃথিবীও উন্নত হচ্ছে আর সেই সুবাদে দিরে দিরে মাঠের আনন্দ টা এখন মানুষ ঘরে বসেই নিচ্ছে কেউ ফোন থেকে কেউ কম্পিউটার থেকে বা কেউ টিভি থেকে মূলত সব কিছুই ডিজিটাল মাধ্যমে। 

কিন্তু দেখার বিষয় হচ্ছে আমরা কি দেখে আনন্দ পাচ্ছি সব কিছুর মাজেই ভালো খারাপ থাকে কিন্তু নানান কারণে দেখা যাচ্ছে যে দিন দিন আমাদের মধ্যে খারাপের প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

ডিরেক্টর কাজল আরফিন ওমির - ব্যাচেলর পয়েন্ট নামের এই সাপ্তাহিক নাটক যা কিনা শুরুতে ছিল ঢাকার শহরের ব্যাচেলর শিক্ষাথীদের দৈনিক জীবন যাপনের দারাবাহিতকতা তুলে ধরা তারই আদলে করা হয়েছে এই নাটকের শুরুটা , কিন্তু দিন দিন এই নাটকের জনপ্রিয়তা পায় তার বেশির ভাগ কারণ হচ্ছে নানান গালিগালাজ নাটকের খারাপ শব্ধ উচ্চারণ যদিও তাদের গালির অংশে বিপ দেয়া থাকে তার পরেও গালি যে বুঝা যাচ্ছে না তা না। 

নাটকের এক অভিনেতা জিয়াউল হক পলাশ নাটকে যার নাম ( কাবিলা ) তার এই নাটক থেকে গালাগালির বিভিন্ন ক্লিপ সামাজিক মাধ্যম গুলোতে ব্যাপক জনপ্রিতা পায় তার থেকেই ধীরে 
ধীরে এই নাটকে পরিণত করা হয়েছে গালির স্কুলে।

এখনকার নাটকে ভালো শব্ধ থেকে থেকে তারা গালাগালি বেশি ব্যবহার করে থাকে যদিও পুরোনো এই নাটক ভক্তদের বেশির ভাগ নাটক টি দেখা বন্ধ করে দিয়েছে তারা বলছে এই নাটক এখন আর দেখার যোগ্য না। 

কোন দিকে যাচ্ছে এই প্রজন্ম কাদের অনুসারী হচ্ছে ?


যেমনটা মুখের ব্যবহার থাকে তেমনি ব্যবহার করা হয় ইংরেজি শব্দের নানান খারাপ কথার টিশার্ট। 
আমাদের মাঝেই অনেকে ভালো লাগে বলে ইউটুবে এই নাটক টা দেখি আমরা মনে করি আমরা প্রাপ্ত বয়স্ক আমরা দেখলে কি হবে ।

কিন্তু আমরা এটা জানিনা যে আমরা এই নাটকটি দেখে অন্যকেও দেখাচ্ছি কারণ আমাদের কারণে ইউটিউব অন্য বেবহারকারীকেও এই ভিডিও সাজেস্ট করে থাকে হতে পারে আমাদের ছোট ভাই বোন বা আমাদের ছোট ছেলে মেয়েদের যা দিন দিন আমাদের মস্তিষ্কের পরিবর্তন নিয়ে আসতেছে।  অনিচ্ছা শর্তেও মুখে সেইসকল কথা বার্তা চলে আসছে। 

Advertisement