কারা রাশিয়ার সমর্থন করছে এখন ?

রাশিয়া প্রেসিডেন্ট

রাশিয়া ইউক্রেন হামলার পর থেকে কারা বা কোন কোন দেশ রাশিয়াকে সমর্থন করে। মূলত পুরো এশিয়া এবং যতগুলো আরব দেশ আছে তাদের সবার সাপোর্ট রাশিয়ার উপরেই যদিও এর মধ্যে কোনো দেশ সরাসরি সেটা প্রকাশ করছে না , কারণ পশ্চিমা দেশের নিষেধাজ্ঞা, সারা পৃথিবী মাত্র করোনা মহামারী থেকে নিজেকে একটু সামলানোর চেষ্টায় ঠিক সেই সময় যদি তাদের উপর পশ্চিমা দেশের কোনো নিষেধাজ্ঞা আসে সেটা অনেক কঠিন রূপ নিতে পারে। 

তাহলে পশ্চিমারা কেমন করে এত শক্ত স্থানে আছে ? 

মূলত ইউরোপের দেশ গুলো যারাই ন্যাটো সদস্য তারাই এই সকল নিষেধাজ্ঞা দিয়ে যাচ্ছে এর কারণ যুদ্ধ বা তাদের যুদ্ধ বিরোধী কোনো প্রদক্ষেপ নয় মূলত আমেরিকাকে খুশিরাখা আর নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক অটুটু রাখার একটি পক্রিয়া।  

যখনি আমেরিকা রাশিয়ার তেল গ্যাসের উপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলো জার্মানি বলেছিলো তাদের দেশ অনেকটাই রাশিয়ার তেল গ্যাসের উপর নির্বরশীল তাই এখনই তারা এই নিষেধাজ্ঞা মানতে পারছেনা কিন্তু তারই কয়দিন পর জার্মানি নিষেধাজ্ঞা দিয়ে বসলো এমনি এমনি ? জিনা আমেরিকার চাপ আর তাদের জোটের নীতিমালার রক্ষায় তারা তাদের স্থান থেকে সরে আসতে হয়েছে , কিন্তু এখন জার্মানি সাধারণ মানুষের ভোগান্তি দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আমেরিকা কেমন করে পারে ? 

এই পুরো যুদ্ধের ঘটনায় আর সকল ধরণের নিষেধাজ্ঞায় যদি কারো লাভ হয়ে থাকে তাহলে সেটা রাশিয়া বা ইউক্রেনের নয় মূলত আমেরিকার , এর কয় একটা দিক আছে। 
যেমন:
রাশিয়া যদি যুদ্ধে হারে তাহলেও আমেরিকার লাভ ইউক্রেনের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে তাদের ইউক্রেন প্রবেশের রাস্তা পুরো খুলে যাবে। আর যদি রাশিয়া জিতে যায় তাহলেও আমেরিকার কোনো ক্ষতি নেই কারণ আমেরিকা যেই পরিমানে অস্র বিক্রি করছে এই যুদ্ধের উছিলায় করোনা কালের সকল লষ্কান থেকে নিজেদের উদ্ধার করা একেবারে অসম্ভব কিছুই হবেনা। 

ন্যাটো মূলত একটি জোট কিন্তু এই জোটের পরিচালনা আমেরিকাই করে তাই ন্যাটো কোনো যুদ্ধে না জড়িয়ে যদি ইউক্রেনকে দিয়ে তাদের চিরো শত্রু রাশিয়াকে হারানো যায় তাহলে আমেরিকা যেইকোনো কিছুর বিনিময় সেটা চেষ্টা করে যাবে এতে ন্যাটো জোটের বাহিরের দেশ গুলোর কোনো স্বার্থ নেই তারা যদি রাশিয়াকে সাপোর্ট করে থাকে তাহলে সেটা একমাত্র রাশিয়ার কোমর পানিতে নামার কারণে। 

কথায় আছে কেউ যদি আমার জন্য কোমর সমান পানিতে নামে আমি তার জন্য গলা সমান পাইনিতে নামতে রাজি আর এটাই মূলত এশিয়ানদের নীতি।

এশিয়ার বেশির ভাগ দেশকেই রাশিয়া একভাবে না একভাবে সাহায্য করেগেছে অনেক সময় সেটা নিজস্বাথীন ভাবে। যেটা পশ্চিমা দেশের জন্য ব্যবসা সেটা রাশিয়া করেছে মানবতা দিয়ে আর এটাই এখন রাশিয়ার মূল শক্তি। 


0 মন্তব্যসমূহ