১৮ বছরের যুবককে ব্যাংকের পরিচালক করার আবেদন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের না

১৮ বছরের যুবককে ব্যাংকের পরিচালক করার আবেদন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের না

সাউথইস্ট ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে চৌধুরী রাহিত সরাফতের নিয়োগে অনুমোদন দেয়নি বাংলাদেশ ব্যাংক। কারণ, তাঁর বয়স মাত্রই ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে। ব্যাংকের পরিচালক হতে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয়। চৌধুরী রাহিত সরাফত হলেন পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সরাফতের ছেলে। শেয়ারবাজারে মিউচুয়াল ফান্ড পরিচালনাকারী সম্পদ ব্যবস্থাপক প্রতিষ্ঠান রেইস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির প্রতিনিধি হিসেবে তাঁকে ব্যাংকটির পরিচালক নিয়োগের অনুমোদন চাওয়া হয়েছিল।

ব্যাংকের পরিচালক হতে কমপক্ষে ১০ বছরের ব্যবসায়িক বা পেশাজীবী অভিজ্ঞতার শর্ত রয়েছে। ১৮ বছর বয়সে সেই অভিজ্ঞতা না থাকায় তাঁর নিয়োগ অনুমোদন করেনি কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সম্প্রতি সাউথইস্ট ব্যাংকের পক্ষ থেকে কয়েকজন নতুন পরিচালক নিয়োগের আবেদন পাঠানো হয় বাংলাদেশ ব্যাংকে। সেখান থেকে দুজন নতুন পরিচালকের অনুমোদন দেওয়া হলেও একজনের অনুমোদন নাকচ করে দেওয়া হয়। 

 ব্যাংকে অন্য দুই নতুন পরিচালক হিসেবে সাবেক সেনা কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন ও এশিয়া ইনস্যুরেন্সের একজন প্রতিনিধিকে নিয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়। ফলে সাউথইস্ট ব্যাংকে নতুন করে দুই পরিচালক যুক্ত হচ্ছেন। কাল বৃহস্পতিবার ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সভা রয়েছে।

জানতে চাইলে সাউথইস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম কামাল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘দুজন নতুন পরিচালক নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আর একজনের অনুমোদন দেয়নি। নতুন যে দুজনকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক অনুমোদন দিয়েছে, তাঁরা পর্ষদে যুক্ত হচ্ছেন।’

এদিকে সম্প্রতি পদ্মা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে এহসান খসরুর পুনর্নিয়োগও নাকচ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কারণ, তার বয়স ৬৫ পূর্ণ হয়েছে। আইন অনুযায়ী, ৬৫ বছরের কেউ ব্যাংকের এমডি হিসেবে থাকার সুযোগ নেয়। এরপরও সংকটে পড়া ব্যাংকটি এমডি হিসেবে এহসান খসরুর পুনর্নিয়োগ চেয়েছিল।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিদ্যমান নিয়মে কোনো ব্যক্তির ৬৫ বছর পূর্ণ হওয়ার পর আর এমডি পদে থাকার সুযোগ নেই। এরপরও ব্যাংকটি আবেদন করেছিল। অনুমোদন নাকচ করা হয়েছে। আর সাউথইস্ট ব্যাংকের ব্যাংকের পরিচালক পদে তিনজনের আবেদন এসেছিল। তবে কম বয়সের কারণে একজনের আবেদন নাকচ করা হয়েছে।

0 মন্তব্যসমূহ

-------- আমাদের সকল পোস্ট বা নিউজ বাংলাদেশের বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকা থেকে নেয়া - প্রতিটি পোস্টের ক্রেডিট সেই পোস্টের শেষ ভাগে দেয়া আছে।