ভারতীয় শিক্ষার্থীদের মালামাল লুটে নেয়া ৭ ডাকাত গ্রেপ্তার

ভারতীয় শিক্ষার্থীদের মালামাল লুটে নেয়া ৭ ডাকাত গ্রেপ্তার

বাংলাদেশে অধ্যয়নরত দুই ভারতীয় শিক্ষার্থীর মালামাল লুটের ঘটনায় ৭ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ও কেরানীগঞ্জ এলাকায় ধারাবাহিক অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- ফখরুল ইসলাম ফকু, আলমাস, সামুন, আব্দুল্লাহ আল ইউসুফ আহম্মেদ আসিক, শাহিন, বাবু ও শফিকুল ইসলাম। এসময় তাদের কাছ থেকে থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার, দুটি চাপাতি, লুণ্ঠিত একটি ল্যাপটপ ও লুণ্ঠিত একটি মোবাইলসহ ১৮টি মোবাইল, লুণ্ঠিত ৪৩ হাজার ৯৫০ ভারতীয় রুপি ও নগদ তিন হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

শনিবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ডিবি দক্ষিণের যুগ্ম-কমিশনার মো. মাহবুব আলম। তিনি বলেন, ডা. সিরাজুল মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের দুই ভারতীয় শিক্ষার্থী শাহীল আহমেদ ও আসিফ ইকবাল থাকতেন মগবাজার এলাকার হোস্টেলে। গত ২৩ জানুয়ারি ভোরে দুই সপ্তাহের ছুটিতে নিজের দেশে যাওয়ার উদ্দেশ্যে হোস্টেল থেকে বের হন।

তিনি বলেন, এসময় গ্রামীণ চেক শো-রুমের সামনে পৌঁছালে পেছন থেকে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকার তাদের সামনে এসে গতিরোধ করে। এরপর প্রাইভেটকার থেকে অজ্ঞাতনামা মুখোশধারী চার জন তাদের ঘিরে ফেলে। এদের মধ্যে দুজন ভিকটিমদের গলায় চাপাতি ঠেকায় এবং অপর দুজন তাদের সঙ্গে থাকা একটি ট্রলি ব্যাগ, একটি হ্যান্ডব্যাগ, একটি ল্যাপটপ, দুটি মোবাইল ফোন, ৫৭ হাজার ভারতীয় রুপি, নগদ ৭ হাজার ৬ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এ ঘটনায় গত ২৩ জানুয়ারি রমনা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি ছায়া তদন্তের ধারাবাহিকতায় শুক্রবার কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ও ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করে ডিবি রমনা বিভাগ।

মাহবুব আলম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা ডাকাতির ঘটনায় তাদের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছেন। গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

Advertisement