কক্সবাজারে ধর্ষণ: সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িত তিন জন শনাক্ত

কক্সবাজারে ধর্ষণ: সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িত তিন জন শনাক্ত

কক্সবাজারে নারী পর্যটককে দলবদ্ধ হয়ে যে তিন জন ধর্ষণ করেছিল, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আজ বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) তিনজনকে শনাক্তের কথা জানিয়েছে র‍্যাব-১৫। তাদের মধ্যে একজন শহরের বাহারছড়া এলাকার সন্ত্রাসী আশিক বলে জানা গেছে। এই তিনজনকে আটক করতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিপিসি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ও খোঁজখবর নিয়ে পর্যটক নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত তিন জনকে শনাক্ত করা হয়েছে।

এদিকে এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি। ওই পর্যটক নারীকে দুপুরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) এখন ওই নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন দায়ি হচ্ছে। গতকাল বুধবার রাতে র‍্যাব ওই নারীকে একটি রিসোর্ট থেকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে ওই রিসোর্টের ব্যবস্থাপক রিয়াজ উদ্দিন ছোটনকে (২৯) আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে র‍্যাব।

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে সপরিবারে বেড়াতে গিয়ে ওই নারী বুধবার দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে বুধবার রাতে র‍্যাবের একটি দল কলাতলী এলাকার একটি রিসোর্ট থেকে তাকে উদ্ধারের কথা জানায়। এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিপিসি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন, তাকে উদ্ধারের পর কক্সবাজার সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

0 মন্তব্যসমূহ