ইভ্যালির সিইও-চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফের প্রতারণার মামলা

ইভ্যালির সিইও-চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফের প্রতারণার মামলা

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেল এবং তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ফের মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম আফনান সুমির আদালতে চেক প্রতারণার অভিযোগে এ মামলা করেন তোফাজ্জল হোসেন।

আদালতে বাদীর জবানবন্দি গ্রহণের পর আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করে তাদের ১০ জানুয়ারি হাজির হতে আদেশ দেন বিচারক। বাদীর আইনজীবী মিয়া হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, বাদী ইভ্যালির অফারের বিজ্ঞাপন দেখে চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি এক লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৫ টাকা পরিশোধ করে একটি মোটরসাইকেল ক্রয়ের অর্ডার করেন। সেই মোটরসাইকেল অর্ডারের ৪৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারির কথা ছিল। এর মূল্য বাবদ দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা বাদীকে দেয়ার চুক্তি ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময় পার হওয়ার পরও আসামিরা মোটরসাইকেলটি ডেলিভারি করতে না পারায় গত ২৮ জুন দুই লাখ ৫০ হাজার টাকার সিটি ব্যাংকের একটি চেক ইভ্যালি ডটকম লিমিটেডের পক্ষ থেকে সিনিয়র ম্যানেজার ফাইন্যান্স ও ম্যানেজার ফাইন্যান্স সই করে বাদী বরাবর ইস্যু করেন। ব্যাংকে টাকা উত্তোলন করতে গেলে চেকটি ডিজঅনার হয়। এরপর চেক প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা করেন বাদী।

এর আগে গুলশান থানায় আরিফ বাকের নামে এক গ্রাহকের করা প্রতারণার মামলার অভিযোগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরে অভিযান চালিয়ে রাসেল ও শামীমাকে বাসা থেকে আটক করে র‍্যাব। এখন পর্যন্ত ইভ্যালির বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলাগুলোতে রাসেলকে ও শামীমা নাসরিনকে একাধিকবার রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তারা দুজন কারাগারে আটক রয়েছেন।

Advertisement