১৫ বছরে ব্রাজিলের অ্যামাজন বন উজাড় চলেছে সবচেয়ে বেশি

১৫ বছরে ব্রাজিলের অ্যামাজন বন উজাড় চলেছে সবচেয়ে বেশি

গত ১৫ বছরে ব্রাজিলের ঘন অরণ্য অ্যামাজন ধ্বংসের মাত্রা সবচেয়ে বেশি। দেশটির এক সরকারি হিসাব থেকে এ তথ্য জানা গেছে। ব্রাজিলের মহাশূন্য গবেষণা সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক বছরে বন উজাড়ের হার ২২ শতাংশ বেড়েছে। খবর বিবিসি বাংলার।

সম্প্রতি গ্লাসগো জলবায়ু সম্মেলনে ২০৩০ সালের মধ্যে বন ধ্বংস বন্ধ করে নতুন বনায়নের অঙ্গীকার করা হয়েছে। এ অঙ্গীকারের সঙ্গে যেসব দেশ সম্পৃক্ত তার মধ্যে ব্রাজিল অন্যতম। অ্যামাজনের চিরসবুজ অরণ্যে প্রায় ৩০ লাখ প্রজাতির গাছপালা ও প্রাণী বসবাস করে। এছাড়া সেখানে প্রায় ১০ লাখ আদিবাসী রয়েছে।

অ্যামজন বনাঞ্চল কার্বন ধারণে একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যা বিশ্বের অস্বাভাবিক তাপমাত্রা থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। ব্রাজিলের সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-২১ সালে এ বনের প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকা ধ্বংস করা হয়েছে। যা ২০০৬ সালের পর থেকে আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে।

তবে অনেক পরিবেশবিদ ও আন্তর্জাতিক রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলেছেন, অ্যামাজন ধ্বংসের মাত্রা ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেয়ার বলসোনারোর শাসনামলে বেড়েছে। বন পরিষ্কার করে কৃষিকাজ ও খনি শিল্প কারখানা গড়ে তোলার পক্ষে তিনি ব্যাপক উৎসাহ দিয়েছেন। একে কেন্দ্র করে ব্রাজিলের মহাশূন্য সংস্থার সঙ্গে তার বিবাদ হয়েছে। ২০১৯ সালে প্রেসিডেন্ট বলসোনারো বলেছিলেন, এ সংস্থা ব্রাজিলের সুনাম নষ্ট করে আসছে।

Advertisement