গৃহহীন তরুণের ২৬ হাজার কোটি টাকা আয়!

গৃহহীন তরুণের ২৬ হাজার কোটি টাকা আয়!

কথায় আছে, ছেঁড়া কাঁথায় শুয়ে লাখ টাকার স্বপ্ন দেখতে নেই। কিন্তু সে স্বপ্নের বাস্তবায়ন যদি অল্প সময়ের মধ্যেই হয়ে যায় তাহলে মন্দ হয় না। তেমনই একজন তরুণ নিক মকুটা।

পথ থেকে পথে ঘুরে ঘুরে কোথাও চাকরি জুটিয়ে নিতে পারেননি নিক মকুটা। গৃহহীন অবস্থা থেকে সেই তরুণই এখন প্রায় ২৬ হাজার কোটি টাকার মালিক। খবর ডেইলি মিররের।

পরিশ্রম ও বুদ্ধিবলে নিজের ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছেন তিনি। এটি কেচ্ছাকাহিনী নয়, একদম সত্যি কথা। মাত্র ২১ বছর বয়সে দাদির কাছ থেকে পাওয়া ৫০০ ডলার নিয়ে রোমানিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন নিক। প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন, এ অর্থ কিছুদিনের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। তারপর তিনি চাকরি জুটিয়ে নেবেন।

অল্প বয়সের ওই ভাবনা সঠিক ছিল না। তিনি নিজেও পরে বুঝতে পারেন। ট্যাক্সিতে উঠে ১০০ ডলার ভাড়া দিতে গিয়ে এ ভুল ভাঙে নিকের। হাতে মাত্র ৪০০ ডলার নিয়েই পথে পথে ঘুরেছেন, রাতে ঘুমিয়েছেন পার্কের বেঞ্চে কিংবা রাস্তার ধারে।

এক সময় পার্কিং লটে গাড়ি রক্ষণাবেক্ষণের চাকরি পেয়ে যান নিক। এর মাধ্যমে দিনের আধপেটা খাবার জুটতো। দোকানে বার্গার খেতে গিয়ে চিজ খেতেন না তিনি। পাছে আবার বেশি খরচ হয়ে যায়। ইতোমধ্যেই ইংরেজি ভাষা রপ্ত করে নেন নিক। রিয়েল এস্টেট এজেন্ট হিসেবে জোগাড় করেন লাইসেন্স। এতেও বেশি আয় করতে পারছিলেন না তিনি।

পরে ২০১৩ সালে পরিচিত কয়েকজনকে দেখে অনলাইনে ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী বিক্রি শুরু করেন। ব্যাস, এবার সুদিনও ফিরল। ব্যবসা শুরুর প্রথম মাসে আয় করেন প্রায় তিন লাখ ডলার।

বর্তমানে নিক প্রায় ৩০০ কোটি ডলারের মালিক। যুক্তরাষ্ট্রে আছে একাধিক ফ্ল্যাট এবং চারটি বিলাসবহুল গাড়ি। ঘরে বসেই কোটি কোটি ডলার আয় করছেন। ৩৭ বছর বয়সী এ তরুণ মনে করেন, ব্যর্থতাকে ভয় না পাওয়া ও হার না মানা মানসিকতাই তাকে এ পর্যন্ত এনেছে।

0 মন্তব্যসমূহ

-------- আমাদের সকল পোস্ট বা নিউজ বাংলাদেশের বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকা থেকে নেয়া - প্রতিটি পোস্টের ক্রেডিট সেই পোস্টের শেষ ভাগে দেয়া আছে।