স্কটল্যান্ডকে বড় লক্ষ্য বেঁধে দিল পাকিস্তান

স্কটল্যান্ডকে বড় লক্ষ্য বেঁধে দিল পাকিস্তান

সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপের সপ্তম আসরে টানা চার ম্যাচে জিতে সবার আগে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলেছে পাকিস্তান। নিয়ম রক্ষার ম্যাচে রবিবার তারা মাঠে নেমেছে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। তবে এই ম্যাচে জিতলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে তারা। এমন সমীকরণে শারজায় টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে তারা সংগ্রহ করেন ১৮৯ রান। এ ম্যাচ জিতলে হলে স্কটিশদের করতে হবে ১৯০ রান। সোয়েব মালিক ১৮ বলে অপরাজিত ৫৪ রান করেন।

স্কটিশ বোলারদের মধ্য হামজা তাহির, সাফিয়ান শরিফ ও ক্রিস গ্রিভস ২টি করে উইকেট তুলে নেন। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে শুরুটা চাহিদা মত হয়নি পাকিস্তানের। পাওয়ার প্লেতে দুই ওপেনার বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ান তুলে নেন মাত্র ৩৫ রান। সপ্তম ওভারে এসে রিজওয়ানকে ফেরান হামজা তাহির। তার বলে উইকেট-রক্ষক ম্যাথিউ ক্রসের তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন পাকিস্তান উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান। রিজওয়ান ১৯ বলে ১ ছক্কার মারে ১৫ রান করেন। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে মাঠে নেমে সুবিধা করতে পারেননি ফখর জামান। ক্রিস গ্রিভসের শিকার হয়ে ১৩ বলে মাত্র ৮ রান করে মাঠ ছাড়েন ফখর। তবে একপ্রান্ত আগলে ধরে স্কটিশদের হতাশায় ডোবাতে থাকেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম। তার সঙ্গে ৫৩ রানের জুটি গড়ে তোলেন মোহাম্মদ হাফিজ। তিনি ১৯ বলে ৩১ রান করে এল-বি-ডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে মাঠ ছাড়েন। তার ইনিংসটি ৪ চার ও ১ ছক্কার মারে সাজানো ছিল।

দলীয় ১১২ রানে মাঠে নেমে তান্ডব চালাতে থাকেন শোয়েব মালিক। এর মধ্য বাবর আজম ৪০ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কার সাহায্য চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চতুর্থ ফিফটি তুলে নেন। এরপর বাবর আরো ২টি ছক্কার মার মারলেও, তৃতীয় প্রচেষ্টায় সীমানায় জর্জ মুনসের তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন। ক্রিস গ্রিভসের শিকার হওয়ার আগে তিনি ৪৭ বলে ৬৬ রানের ইনিংস খেলেন। অপরদিকে মাঠে বিধ্বংসী ব্যাট চালিয়ে স্কটিশদের নাস্তাবুদ করতে থাকেন সাবেক পাক অধিনায়ক শোয়েব মালিক।

Advertisement