একমাত্র বাংলাদেশ আর ইন্ডিয়ার মতো দেশে সম্ভব -বিমানের ক্ষুব্ধ পাইলটরা আন্দোলনে

একমাত্র বাংলাদেশ আর ইন্ডিয়ার মতো দেশে সম্ভব

বেতন কাটা নিয়ে ক্ষুব্ধ বিমানের পাইলটরা আন্দোলনের প্রথম কর্মসূচিতে চুক্তির বাইরে কোনো কাজ না করার ঘোষণা দিয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পাইলট অ্যাসোসিয়েশন (বাপা) সভাপতি মাহবুবুর রহমান গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানান।

একমাত্র বাংলাদেশ আর ইন্ডিয়ার মতো দেশে সম্ভব এমন আন্দোলন এর আগে ইন্ডিয়ান এয়ার আইডিয়া পাইলটরা ২০২০ সালে এমন আন্দোলন করেছিলেন যদিও তাদের ডিমান্ড ছিলো অন্যরকম। 

করোনাকালে বিমানে সবার বেতন কাটার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। দেড় বছর বাদে অন্যদের ফের আগের মতো বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও পাইলটদের ক্ষেত্রে হয়নি। তবে তিন মাস আগে পাইলটরা ধর্মঘটের হুমকি দিলেও বিমান কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে আন্দোলনে যায়নি।

মাহবুবুর বলেন, এরপর গত দুই মাসেও কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় পাইলটরা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাদের সঙ্গে বিমানের যে চুক্তি, সেটার বাইরে তারা কোনো কাজ করবে না।

পাইলটরা জানান, বিমান ও বাপার মধ্যে সম্পাদিত দ্বিপক্ষীয় চুক্তি অনুযায়ী পাইলটদের মাসে ৭৫ ঘণ্টা ফ্লাই করার কথা এবং মাসে ৮ দিন ছুটি পাওয়ার কথা।

রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে বর্তমানে ১৫৭ জন পাইলট কাজ করছেন।

এ বিষয়ে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সালেহ মোস্তফা কামালের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

করোনা মহামারী শুরুর পর গত বছর বিশ্বের আকাশপথে চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে পড়ে। যাত্রীবাহী ফ্লাইট বন্ধ হওয়ার পর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ কর্মীদের বেতন কমিয়ে আনে।

0 মন্তব্যসমূহ